লোভ থেকে বাঁচার উপায়

আজকে অনেক দিন পরে কেন জানি খুবই মনে চাচ্ছে কিছু লিখি । আজকের লিখাটা আমি উৎসর্গ করছি আমার লোভী প্রবিত্তিকে। চলুন শুরুতে একটা ছোট বেলার গল্প দিয়ে শুরু করি।

এক ধনী কৃষককে একবার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল যে সকাল থেকে সে যতটুকু হেঁটে তার হাঁটা শুরুর জায়গায় ফিরতে পারবে সূর্যাস্তের পূর্বে সেই পরিমান জমি তাকে দেয়া হবে।সেই কৃষক পরদিন খুব সকালে হাঁটা শুরু করলো  খুবই দুরুতার সাথে কারন সে যত বেশি হাঁটতে পারবে সেই জমি এর মালিক সে হবে এই লোভে। ক্লান্তি সত্তেয় সে থামল না সে সকাল বেলা টা হাঁটল দুপুরের ও  হাঁটল শেষ বিকেলে এসে তার মনে হল তাকে শুরু এর জায়গাতে না ফিরলে সে তো জমি পাবেনা জমি এর লোভে সে দৌড়াতে লাগলো আগেই সে ক্লান্ত ছিল তারপরেও সে দৌড়ানো থামাল না শেষ পর্যন্ত সে তার শুরু এর জাইগাতে ফিরে এলো তবে তার ক্লান্তি এর কারনে সে সেই জায়গাতে কিছু সময় পরে মারা গেল ।সে অনেক জমি পেয়েছিল বটে তবে তার সাড়ে তিন হাত জমি বাদে আর বাকি কোন জমিই কাজে লাগেনি।

আসলে কথা হচ্ছে লোভ সবসময় বেশি চায়।আপনি যে কারো প্রয়োজন মিটাতে পারবেন কিন্তু তার লোভকে পরিতিপ্ত করা যায় না।লোভ মানুসিকতা নষ্ট আসুন জানি আমি আপনি কতটা লোভী।তার জন্য আপনাকে সঠিক ভাবে তিনটি প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে।

**এই জিনিষটা কি আমার সমর্থের মদ্ধে রয়েছে?

**এটা কি সত্যিই আমার দরকার?

**এই জিনিষটা যদি আমার থাকে তবে আমি মানুষিক ভাবে কি সস্থি পাবো?

লোভের হাত থেকে পরিত্রান পেতে আপনি আপনার  সাধ্যমতন জীবনযাপন করুন। সন্তুষ্ট থাকুন নিজের সমর্থের উপর ।

যাবার আগে বলে যাই উচ্চাশা করতে কেউকে আমি নিরুতসাহী করেনি জাস্ট বলেছি লোভ থেকে বিরত থাকুন।ভাল লাগলে  আপনার কানেকশনের সবার মাঝে ছড়িয়ে দিবেন সেই প্রত্যাশায় শেষ করছি। ধন্যবাদ আপনাকে ।

Get more stuff

Subscribe to our mailing list and get interesting stuff and updates to your email inbox.

Thank you for subscribing.

Something went wrong.