শুভ দিন। সবাই ভাল আছেন নিশ্চয়ই। আজকে অনেকদিন পরে আপনাদের জন্য লিখা শুরু করলাম। কি লিখবো কি লিখবো ভাবছিলাম। তখন ভাবলাম একটা  মজার বিষয় ইমেইল মার্কেটিং নিয়ে শেয়ার করি।

আমাদের সবার কম বেশি ইমেইল বাউন্স হবার অভিজ্ঞতা রয়েছে। আজকে আমরা ইমেইল বাউন্স কি, কত প্রকার, কেন হয় ও কিভাবে জানবেন যে আপনার ইমেইল বাউন্স করেছে তা নিয়ে অল্পবিস্তর আলোচনা করবো। তাহলে শুরু করা যাক আমাদের পথ চলা ।  

ইমেইল বাউন্স কি?

ইমেইল বাউন্স (Email bounced) হচ্ছে আপনি যাকে ইমেইল পাঠালেন তার সার্ভার যদি তা গ্রহন করতে সমর্থ না হয় তাহলে, যে বা জিনি ইমেইল টি পাঠান তার কাছে ফিরত চলে আসে। এই ফিরত চলে আসাকে আমরা বলে থাকি ইমেইল বাউন্স।

email bounced

কিভাবে বুঝবেন যে আপনার ইমেইল বাউন্স করেছে?

আপনি যদি কোন ইমেইল মার্কেটিং প্ল্যাটফরম ইউস করে, অনেক গুলি ইমেইল পাঠান এক বারে তাহলে আপনি রিপোর্ট সেকশনে গেলেই আপনার ইমেইল বাউন্স নাম্বার দেখতে পারবেন, সেই সাথে সাথে জানতে পারবেন কোন কোন ইমেইল অ্যাড্রেস থেকে ইমেইল বাউন্স করেছে। চাইলে আপনি সেইখান থেকে আপনি ইমেইল বাউন্স লিস্ট টেক্সট, সিএসভি, পিডিএফ, এক্সেল ইত্যাদি ফরম্যাটে ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

এবার আসি যারা এক দুইটি ইমেইল পাঠান তারা কিভাবে চেক করবেন, সেই বিষয়ে। আপনি আপনার ইমেইল নন ডেলিভারি নোটিফিকেশন পাবেন।

আমি আসলে ইমেইল হ্যান্ডল করতে মেইলট্রাক নামে ক্রম এক্সটেনশন ব্যবহার করে চেক করে থাকি। এই এক্সটেনশন থেকে আপনি কখন মেইল ওপেন করেছে, ৭ দিনের মাঝে সে ওপেন না করলে একটি নোটিফিকেশন দিবে। এই দুটি আমার কাছে সবচেয়ে ভাল লাগার ফিচার মেইলট্রাক নামের এক্সটেনশনের

এবার আসি আমরা ইমেইল বাউন্সের প্রকারভেদ নিয়ে?

আসলে এটিকে আমরা দুভাবে ভাগ করতে পারি। তা নিয়ে নিচে আলোচনা করা হল, তার আগে একটু ৭আপ পানের বিরতি।

কিভাবে বুঝবেন যে আপনার ইমেইল বাউন্স করেছে?

#১.সফট ইমেইল বাউন্স

এই টার নাম শুনলেই আপনারা বুঝে গিয়েছেন যে সে কি ধরনের কাজকর্ম করবে।

এটি সাময়িক কোন কারনে ডেলিভারি না হবার ফলে ঘটে থাকে। কি কি কারনে ঘটতে পারে

#১. ইমেইল বক্স ফুল হয়ে যাওয়া।

#২. ইমেইল ম্যাসেজ খুবই বড় হওয়া।

#৩. যেই ইমেইল যাকে আপনি পাঠিয়েছেন তার  সার্ভার সাময়িক সময়ের জন্য ডাউন বা অফলাইন থাকা।

ইমেইল বাউন্স
ইমেইল বাউন্স

#২. হার্ড ইমেইল বাউন্স

নাম শুনলেই আপনারা ধারনা করতে পারছেন তারপর আমি এটিকে সংজ্ঞায়িত করছি। এটি একটা পার্মানেন্ট কারনে ঘটে থাকে।

#১. ইমেইল সার্ভার পার্মানেন্ট ব্লক হয়ে যাওয়া।

#২. আপনি ভুল ইমেইল অ্যাড্রেস দিলেন যে নামে কোনই ইমেইল নেই।

#৩. ডোমেইন নাম না থাকা।

আজকে আর নয় সামনের লিখনিতে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো ভ্যালিড ইমেইল অ্যাড্রেস হওয়া সত্ত্বেও কেন ইমেইল হার্ড বাউন্স হতে পারে। সেই পর্যন্ত সবাই ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন।

Comments

comments